আবারও ফিলিস্তিনি কিশোরকে গুলি

দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী ফিলিস্তিনি এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করেছে। পশ্চিম তীরের নাবলাসের কাছে একটি শরণার্থী ক্যাম্পে ইসরায়েলি বাহিনী গুলি চালালে ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোর নিহত হয়। ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আজ মঙ্গলবার ইমাদ খালেদ সালেহ হাশাশ নামের ওই কিশোর নিহত হয়। বালাতা শরণার্থী শিবিরে থাকা ওই কিশোরের মাথায় গুলি লেগেছিল।

এদিকে ইসরায়েলি বাহিনী জানিয়েছে, তারা ওই শরণার্থী শিবিরে এক সন্দেহভাজনকে আটক করতে রাতভর অভিযান চালিয়েছে। তাদের দাবি, অভিযানের সময় বিভিন্ন ভবনের ছাদ থেকে তাদের লক্ষ্য করে গোলাবারুদ নিক্ষেপ করা হয়। এর জবাবে ইসরায়েলি বাহিনীও পাল্টা গুলি চালায়।

ফিলিস্তিনি সংবাদমাধ্যমের খবরে জানানো হয়েছে, ইসরায়েলের গুলিতে কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছে গাজা উপত্যকার নিয়ন্ত্রণে থাকা ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। বালাতা ক্যাম্পে ইসরায়েলি অভিযানের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিদের প্রতিরোধের ঘটনায় প্রশংসাও করেছে এই সংগঠন।

পশ্চিমতীরে প্রায়ই ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের হত্যার ঘটনা ঘটছে। এর আগে চলতি মাসের শুরুতে জেনিন শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে চার ফিলিস্তিনি নিহত হয়। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, গাজা উপত্যকায় হামাসের অস্ত্র উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, একটি সুরঙ্গ এবং ভূগর্ভস্থ রকেট লঞ্চার সাইট লক্ষ্য করে রাতভর সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়েছে।

সূত্র: আলজাজিরা