আফগানিস্তান পরিস্থিতিতে ভারতের চেচামেচি অপমানজনক পরাজয়ের প্রমাণ: পাক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শেখ রশীদ আহমেদ বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে ভারতীয় নাগরিক সরিয়ে নেয়া এবং তার কনস্যুলেট অফিসগুলো বন্ধ করে দেয়ার মধ্যদিয়ে প্রমাণ হয় যে, সেখানে ভারতের লজ্জাজনক পরাজয় হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আফগানিস্তান পরিস্থিতিতে ভারত যে চেঁচামেচি করছে তা তাদের কর্মকাণ্ডের স্বাভাবিক ফল।

শেখ রশীদ আহমেদ অভিযোগ করেন, আফগানিস্তানে ভারতীয় কনস্যুলেট অফিসগুলো পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কাজ করছিল। তেহরিক-ই-তালেবানের মাধ্যমে ভারতের এসব কনস্যুলেট অফিস পাকিস্তানের ভেতরের সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনায় জড়িত ছিল। এছাড়া, এসব কনস্যুলেট অফিস চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডোর বা সিপিইসি’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল।

পাক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আফগানিস্তানের ভেতরে পাকিস্তান কোনো রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জনের প্রক্রিয়ায় জড়িত ছিল না। তালেবানের হাতে পুরো আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ চলে যাওয়ার পর দেশটিতে কোনো রক্তপাত না ঘটায় শেখ রশিদ আহমেদ সন্তোষ প্রকাশ করেন।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, আফগানিস্তানের টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠা জরুরি; এটি আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিশ্বের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তিনি আরো বলেন, আফগানিস্তানের শান্তি মানেই পাকিস্তানের এবং ইসলামাবাদ সবসময় আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠার পক্ষে কাজ করেছে। চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডর নিয়ে বাইরের কেউ ষড়যন্ত্র করে সফল হতে পারবে না এবং চীন ও পাকিস্তানের মধ্যকার সম্পর্কে কেউ বাধা সৃষ্টি করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন শেখ রশীদ আহমেদ।

সূত্রঃ পার্সটুডে