আফগানিস্তান নিয়ে চীনের আগ্রহ ইতিবাচক হতে পারে : মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন, আফগানিস্তানে চীনের সম্ভাব্য সম্পৃক্ততা ইতিবাচক বিষয় হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, এটা তখনই সম্ভব যদি চীন দেশটিতে বিরোধের শান্তিপূর্ণ সমাধান এবং একটি সত্যিকারের প্রতিনিধি ও অন্তর্ভুক্ত সরকার চায়। দুই দিনের ভারত সফরকালে তিনি এ কথা বলেছেন। তালেবান প্রতিনিধিদের চীন সফরের পরই তার এ মন্তব্য এলো।

অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেন, তালেবানদের দ্বারা দেশটির সামরিক অধিগ্রহণের বিষয়ে কারো আগ্রহ নেই। এ সময় তালেবানকে শান্তিপূর্ণভাবে আলোচনার টেবিলে আসার আহ্বান জানান তিনি। দুই দিনের চীন সফরে ৯ সদস্যের তালেবান প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করেছে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-এর সঙ্গে। দুই পক্ষের বৈঠকে আফগানিস্তানের শান্তিপ্রক্রিয়া ও নিরাপত্তা-সংক্রান্ত বিষয় আলোচনা করা হয়েছে। এ বৈঠক নিয়ে গতকাল বুধবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও তালেবানের কাছ থেকে পৃথক বক্তব্য এসেছে।

বৈঠকের পর চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, তালেবান প্রতিনিধিদের বেইজিং বলেছে যে তারা আশা করে, সশস্ত্র গোষ্ঠীটি আফগান যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘোষণা ও দেশ পুনর্গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তালেবান প্রতিনিধিদল বেইজিংকে আশ্বস্ত করে জানায়, তারা কাউকে চীনের বিরুদ্ধে আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করার সুযোগ দেবে না।

সূত্র: বিবিসি।