আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে ভুল হয়নি: বাইডেন

আফগানিস্তান নিয়ে ফের মুখ খুললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বললেন, আফগানদেরই নিজেদের লড়াই করতে হবে। আমেরিকা বাইরে থেকে সাহায্য করবে।

সমালোচনা হচ্ছে। বিশ্বের অনেক দেশই সরাসরি অথবা ঘুরিয়ে আফগানিস্তান পরিস্থিতির জন্য অ্যামেরিকাকে দায়ী করছে। যে ভাবে আমেরিকা সেখান থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা নিয়ে আলোচনা অনেক।

কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মনে করেন, তার সিদ্ধান্তে কোনো ভুল নেই। অ্যামেরিকা ঠিক সময়েই আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিয়েছে। মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে বাইডেন জানিয়েছেন, আফগানদেরলড়াই তাদেরই লড়তে হবে। অ্যামেরিকা শর্ত মেনে তাদের সাহায্য করবে।

আফগানিস্তানকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, যুদ্ধাস্ত্র, পোশাক, খাবার, সেনার বেতন এবং বিমান হামলায় সাহায্য করবে। সেনা সরিয়ে নেওয়ার পরেও অ্যামেরিকা আফগানিস্তানকে সেই সাহায্য করছে। কিন্তু এর চেয়ে বেশি সাহায্য তাদের পক্ষে করা সম্ভব নয় বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এদিকে মঙ্গলবারও দুইটি আঞ্চলিক রাজধানী দখল করেছে তালেবান। এই নিয়ে গত এক সপ্তাহে তালেবান আফগানিস্তানের আটটি প্রাদেশিক রাজধানী দখল করল। মঙ্গলবার তাদের হাতে এসেছে ফারাহ শহর এবং পুল-ই-খুমরি। পুল-ই-খুমরি বাগলানের রাজধানী। সেখান থেকে কাবুলের দূরত্ব ২০০ কিলোমিটার। ফারাহ অবশ্য পশ্চিম আফগানিস্তানে। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, তালেবানরা ক্রমশ কাবুলের দিকে এগোচ্ছে। কাবুলের আশপাশের সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলি আগে তারা হাতে নিয়ে নিতে চাইছে।

সংবাদসংস্থা এএফপি-কে পুল-ই-খুমরি শহরের এক নারী জানিয়েছেন, রাস্তায় মৃতদেহ ছড়িয়ে আছে। জেলগুলির বাইরে মৃতদেহের স্তূপ। ভয়ে কেউ বাড়ি থেকে বেরচ্ছেন না। প্রচুর শিশুও আক্রান্ত হচ্ছে। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ সম্প্রতি একটি রিপোর্টে জানিয়েছে, আফগানিস্তানে বহু শিশু আক্রান্ত। কিন্তু সকলের কাছে পৌঁছানো যাচ্ছে না। গত এক সপ্তাহে সব মিলিয়ে প্রায় এক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলেও তারা জানিয়েছে। ডয়েচভেলে।