আফগানিস্তানে উদ্ধারে দেরি হওয়ায় ডাচ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ

আফগানিস্তান থেকে দেরি করে উদ্ধারের দায় নিয়ে পদত্যাগ করেছেন ডাচ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগরিড কাগ। বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাবে হেরে যাওয়ার পর তিনি পদত্যাগ করেন।

বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে ভোটাভুটি হয়। অধিকাংশ সদস্য মনে করেন, আফগানিস্তান থেকে তাদের নাগরিক ও যে সব আফগান তাদের সাহায্য করেছিলেন, তাদের উদ্ধার করতে দেরি হয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঠিকভাবে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পারেননি। ভোটাভুটিতে হেরে যাওয়ার পর কাগ পদত্যাগ করেন। তিনি বলেছেন, পার্লামেন্টের মনে হয়েছে, মন্ত্রিসভা দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ করেছে। একজন দায়িত্বে থাকা মন্ত্রী হিসাবে আমি দায় স্বীকার করতে বাধ্য।

অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ৭৮টি ও বিপক্ষে ৭২টি ভোট পড়ে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, সিগরিড কাগের না থাকাটা একটা বিরাট ক্ষতি। পার্লামেন্টের বিতর্কে কাগ স্বীকার করে নিয়েছিলেন, পরিস্থিতি দ্রুত খারাপ হচ্ছিল। সরকার দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পারেনি। তার অর্থ, আফগানিস্তানে যে ডাচ নাগরিকরা ছিলেন এবং যে আফগান অনুবাদকারী সেনাকে সাহায্য করছিলেন, তাদের উদ্ধারে দেরি হয়েছে। সাংবাদিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় কাজ করা আফগানদের উদ্ধার করে নিয়ে আসা সম্ভব হয়নি। সবমিলিয়ে দুই হাজার একশ মানুষকে আফগানিস্তান থেকে নিয়ে আসতে পেরেছে সরকার।

গত মে মাসে কাগ পররাষ্ট্রমন্ত্রকের দায়িত্ব পেয়েছিলেন। এর আগে তার হাতে বৈদেশিক বাণিজ্য ও উন্নয়ন সহযোগিতা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বভার ছিল। তার আগে তিনি জাতিসংঘে বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন। তিনি সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র বন্ধ করা সংক্রান্ত মিশনের প্রধান ছিলেন। তিনি লেবাননে জাতিসংঘের কাজের তত্ত্বাবধানের দায়িত্বেও ছিলেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তিনি পদত্যাগ করার পরেও তার বামপন্থি দল ডি৬৬-র নেতৃত্ব দিতে চান। তার দল ক্ষমতাসীন জোটে আছে।

সূত্র: এপি, রয়টার্স।