আটকে থাকা জাহাজ বিস্ফোরিত হলে দায় সৌদি আরব এবং জাতিসংঘের: হুথি আন্দোলন

ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, হুদাইদা বন্দরের কাছে দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকা জাহাজে যদি বিস্ফোরণ ঘটে তাহলে তার দায় দায়িত্ব নিতে হবে সৌদি আরব এবং জাতিসংঘকে।

আনসারুল্লাহ আন্দোলনের মুখপাত্র মুহাম্মদ আব্দুস সালাম গতকাল (রোববার) এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। সৌদি আরব এবং জাতিসংঘ দাবি করেছে যে, আটকে থাকা তেলবাহী জাহাজ পরিদর্শনের জন্য জাতিসংঘের একটি পরিদর্শক দলকে বাধা দিচ্ছে হুথিরা।

সৌদি আরব এবং জাতিসংঘের এই দাবি নাকচ করে দিয়েছেন আব্দুস সালাম। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বারবার ইয়েমেনে পক্ষ থেকে ওই জাহাজের অবস্থা মূল্যায়ন করার আহ্বান জানানো হয়েছে কিন্তু ইয়েমেনের সে দাবি প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

জাতিসংঘের কয়েকজন বিশেষজ্ঞ বলেছেন, আনসারুল্লাহ আন্দোলনের কারণে ওই জাহাজ পরিদর্শন করতে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না অথচ জাহাজের অবস্থা খারাপ।

জাতিসংঘের এ সমস্ত বিশেষজ্ঞ বলছেন, জাহাজে যেকোনো সময় বিস্ফোরণ ঘটতে পারে এবং তা বড় রকমের সংকটের কারণ হবে। তারা বলছেন, জাহাজে বিস্ফোরণ ঘটলে তার দায়-দায়িত্ব হুথি আনরুরুল্লাহ আন্দোলনকে নিতে হবে।

জাতিসংঘ বিশেষজ্ঞদের এই বক্তব্য নাকচ করে দেন আব্দুস সালাম। এর বিপরীতে তিনি বলেন, বছরের পর বছর সৌদি আরব ইয়েমেনের ওপর আগ্রাসন চালিয়ে আসছে তা ঠেকাতে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে জাতিসংঘ এবং এক্ষেত্রে জাত সংঘের এই নীরবতা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।