আকাশে ইরানি বিমানকে বাধা: যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে মামলা করবে লেবানন

আকাশে ইরানের যাত্রীবাহী বিমানের জন্য হুমকি সৃষ্টির দায়ে মামলা করবে লেবানন। ইরানের ওই বিমানে লেবাননের অনেক নাগরিক ছিলেন এবং মার্কিন জঙ্গিবিমানের বিপজ্জনক তৎপরতার কারণে কয়েক জন লেবাননি নাগরিক আহত হয়েছেন। এসব নাগরিককে হাসপাতালে দেখতে গিয়ে লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি আজ (শনিবার) বলেছেন, মার্কিন জঙ্গিবিমান আকাশে ইরানি যাত্রীবাহী বিমানকে ভীতি প্রদর্শন করেছে। এটা দণ্ডনীয় অপরাধ। তিনি আরও বলেন, মার্কিন জঙ্গিবিমানের ভীতি প্রদর্শনের কারণে বিমানের যেসব যাত্রী শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সবার পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে মামলা দায়ের করা হবে।

লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আশা করছি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত এ ধরণের হুমকি ও হামলা সংক্রান্ত মামলা গুরুত্বের সঙ্গে নেবেন এবং আন্তর্জাতিক আইনের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত দেবেন। আন্তর্জাতিক আইনে বিমান এবং নিরপরাধ যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, গোটা বিশ্বই যখন করোনা সংকটে জর্জরিত ঠিক সে সময় আকাশে এ ধরণের শয়তানি তৎপরতার জবাব দিতে হবে।

গতকাল (শুক্রবার) তেহরান থেকে ‘মাহান’ এয়ারলাইন্সের একটি বিমান উড্ডয়ন করে সিরিয়া হয়ে লেবাননের রাজধানী বৈরুতে যাওয়ার পথে মার্কিন জঙ্গিবিমানের বাধার মুখে পড়ে। সিরিয়ার আল-তানফ অঞ্চলে মার্কিন জঙ্গিবিমান ইরানি যাত্রীবাহী বিমানকে হয়রানি করে। যাত্রীবাহী বিমানকে লক্ষ্য করে বিপজ্জনক তৎপরতা চালায়।

এরপর যাত্রীবাহী বিমান তার অবস্থান পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়, বিমানের ভেতরে সৃষ্টি হয় ভয়ানক পরিস্থিতি। এর ফলে অনেক যাত্রীই আহত হয়।