আইসিসির চিফ প্রসিকিউটরের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে ‘অনিয়ন্ত্রিত উন্মাদনা’ বলল ইরান

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রধান কৌঁসুলি ফাতুহ বেনসোদার ওপর মার্কিন সরকার যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তাকে ‘অনিয়ন্ত্রিত উন্মাদনা’ বলেছেন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ। তিনি এই উন্মাদনা বন্ধ করতে ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানান।

গতকাল (বুধবার) মার্কিন সরকার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রধান কৌঁসুলি ফাতুহ বেনসোদার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার কথা ঘোষণা করে।

আফগানিস্তানে মার্কিন বাহিনীর অপরাধ তদন্তের ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন ফাতুহ বেনসোদা। মার্কিন সরকার বলছে, আমেরিকার জনগণকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের এ কর্মকর্তা।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রধান কৌঁসুলির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমেরিকা একতরফাভাবে নিষেধাজ্ঞা আরোপের নীতি অনুসরণ করে আসছে এবং তারা ব্যক্তি থেকে শুরু করে ছোট, মাঝারি এবং বড় পর্যায়ের প্রতিষ্ঠানকে নিষেধাজ্ঞার শিকার বানিয়েছে। এখন আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বকেও তারা বাদ দিচ্ছে না।

এই পাগলামি বন্ধের একমাত্র উপায় হচ্ছে মার্কিন সরকারের আত্মতুষ্টি বন্ধ করা। জাওয়াদ জারিফ তার ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্টে এসব কথা বলেছেন। তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ভীত হয়ে আমেরিকার কাছে আত্মসমর্পণ করলে তাদের নিষেধাজ্ঞার ক্ষুধা শুধু বেড়েই চলবে।

এদিকে, আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের পক্ষ থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার নিন্দা জানানো হয়েছে। আইসিসি বলেছে, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার অর্থ হলো আইনের শাসনের ওপর হামলা।