‘আইডা’র আঘাতে ক্ষতবিক্ষত যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা

ঘূর্ণিঝড় আইডা’র ছোবলে ক্ষতবিক্ষত লুইজিয়ানায় উদ্ধারকারীরা তাদের অভিযান শুরু করেছে। ঝড়ের আঘাতে দু’জনের প্রাণহানি ঘটে। বন্যার পানিতে আটকা পড়েছে লোকজন। উড়ে গেছে ঘরের ছাদ।

লুইজিয়ানা জুড়ে ১০ লাখেরও বেশি বাড়িঘর বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে। নিউ অরলিন্স এখনও ডুবে আছে অন্ধকারে। জেনারেটরের মাধ্যমে জরুরি পরিষেবা চালু রাখা হচেছ।

ফুটেজে বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া গাড়ি থেকে লোকজনকে উদ্ধার করতে দেখা গেছে। বাড়িঘরের ছাদ উড়ে যেতে দেখা গেছে বিভিন্ন ছবিতে। লুইজিয়ানার স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, আমার জানালার কাচ ভেঙে গেছে। ছাদের কিছু টাইলস রাস্তায় ভেঙে পড়েছে। ফলে ভেতরে পানি ঢুকছে। লুইজিয়ানার গভর্ণর জন বেল এডওয়ার্ড বলেছেন, ক্ষতি সত্যিই ভয়ানক।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন লুইজিয়ানা ও মিসিসিপিতে বড় ধরনের দুর্যোগ ঘোষণা করেছেন। ইতোমধ্যে সেখানে ফেডারেল সহায়তা দেয়ার কথাও জানিয়েছেন। এডওয়ার্ড টুইটারে জানিয়েছেন, লুইজিয়ানায় ১৬শরও বেশি উদ্ধারকারী কাজ করছে।

সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল হানক টেইলর সাংবাদিকদের বলেছেন, সামরিক বাহিনী, জরুরি ফেডারেল ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ও ন্যাশনাল গার্ডের ৫ হাজার ২শর’ও বেশি সদস্য লুইজিয়ানা, মিসিসিপি, টেক্সাস ও আলাবামায় মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, স্থানীয় সময় রোববার যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য লুইজিয়ানায় আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় আইদা। ঝড়টি ক্যাটাগরি ফোর হিসেবে নিউ অরলিন্সের একশ’ মাইল দক্ষিণে লুইজিয়ানা উপকূলের ফোর্ট ফরচুনে ঘণ্টায় ১১০ মাইল বেগে আঘাত হানে। ক্যাটরিনা ছিল একই ক্যাটাগরির ঝড় যা ২০০৫ সালের ২৯ আগস্ট এই রাজ্যে আঘাত হেনেছিল। ক্যাটরিনার আঘাতে প্রাণ হারিয়েছিল ১৮শ’ লোক।