আইএইএ’র প্রতিবেদন: কাঙ্ক্ষিত দু’টি স্থাপনায় প্রবেশাধিকার দিয়েছে ইরান

আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র সর্বসাম্প্রতিক প্রতিবেদনে ইরানের দু’টি পরমাণু স্থাপনায় এই সংস্থার পরিদর্শকদের প্রবেশাধিকার দেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

গতকাল (শুক্রবার) ভিয়েনায় আইএইএ’র সদরপ্তরে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংস্থার পরিদর্শকরা এরইমধ্যে একটি স্থাপনা পরিদর্শন করেছেন এবং আরেকটি স্থাপনা চলতি মাসেই পরিদর্শন করা হবে বলে তেহরানের সঙ্গে কথা হয়েছে। এর আগে এই আন্তর্জাতিক সংস্থা অভিযোগ করেছিল, ইরান আইএইএ’কে না জানিয়ে তার দু’টি স্থাপনায় পরমাণু তৎপরতা চালাচ্ছে।

এরপর গত সপ্তাহে সংস্থাটির মহপরিচালক রাফায়েল গ্রোসি তেহরান সফরে আসেন এবং এ সময় ইরান স্বেচ্ছায় তার দু’টি পরমাণু স্থাপনা আইএইএ’র পরিদর্শকদের জন্য উন্মুক্ত করে দিতে সম্মত হয়।এ সময় গ্রোসির সঙ্গে ইরান যে যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করে তা আইএইএ’র গতকালের প্রতিবদনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরান এখনো ৪.৫ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করে যাচ্ছে; যদিও পরমাণু সমঝোতায় দেশটি সর্বোচ্চ ৩.৬৭ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।সেইসঙ্গে প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ইরানে বর্তমানে ১০৫ কেজি সমৃদ্ধ ইউরেনিয়ামের মজুদ রয়েছে যা পরমাণু সমঝোতায় বর্ণিত পরিমাণের ১০ গুণ।

পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার একতরফাভাবে বেরিয়ে যাওয়া এবং এতে দেয়া নিজেদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ইউরোপের ব্যর্থতার জের ধরে গত বছর ইরান ধাপে ধাপে এই সমঝোতায় নিজের দেয়া প্রতিশ্রুতি হ্রাস করে এবং এক পর্যায়ে তেহরান ঘোষণা করে এতে দেয়া সব প্রতিশ্রুতি আপাতত স্থগিত রাখতে বাধ্য হচ্ছে ইরান।