অশ্লীলতা ও সামাজিক বিশৃঙ্খলা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে- পীর সাহেব চরমোনাই

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, ইসলামী বিধি-বিধান না মানার কারণে পারিবারিক বন্ধন, সামাজিক বিশৃঙ্খলা চরম আকার ধারণ করছে। সমাজে ব্যাপকহারে পরকীয়া, লিভটুগেদারসহ নানাবিধ হারাম কাজ চলছে। শহর কিংবা গ্রাম সবখানেই চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে ইসলামের অন্যতম বিধান পর্দার অমোঘ বিধান। সব ধরণের আযাব গজব ও বিপর্যয় থেকে বাঁচতে আল্লাহপাকের সমস্ত নাফরমানি ছাড়তে হবে, গুনাহমুক্ত জীবন যাপন করতে হবে, সব ধরণের পাপাচার পরিহার করে জীবন পরিচালনা করতে হবে।

আজ শুক্রবার বরিশালের ঐতিহ্যবাহী চরমোনাই মাদরাসা মসজিদে জুমার আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামী আন্দোলনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, বর্তমান সময়ে একদিকে যেমন করোনাভাইরাসের মহামারি চলছে, সেই সাথে দেশে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়ছে। সুতরাং আমাদের সব ধরণের গুনাহ ছাড়তে হবে এবং তওবা ইস্তেগফার করতে হবে।

আজকের এই বিপর্যয় আমাদেরই কৃতকর্মের ফল। এজন্য মুত্তাকীর গুণে গুণান্বিত হতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের সকলকে মুত্তাকী হতে হবে। মুত্তাকী হলে আল্লাহ তায়ালা দুইটি পুরষ্কার দিবেন। একটি হল যেকোনো মুসিবতে আল্লাহ তায়ালা তার রাস্তা খুলে দিবেন। দ্বিতীয়টি তার রিজিক অফুরন্ত বেহিসাব হবে।

পীর সাহেব চরমোনাই সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, কোরআন-হাদীস চর্চার কেন্দ্রগুলো অবিলম্বে খুলে দিয়ে কোরআন ও হাদীস চর্চার সুযোগ করে দিলে আল্লাহর অজস্র নেয়ামত বর্ষিত হতে থাকবে। কাজেই আল কালক্ষেপণ না করে অবিলম্বে কওমি মাদরাসাসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দিন।