অক্টোবরেই চালু হচ্ছে সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট

আগামী ৪ অক্টোবর থেকে চালু হচ্ছে সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট। তবে, করোনা পরিস্থিতিতে যাত্রী খরা থাকায় ঢাকা থেকে ওসমানি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে লন্ডন যাবে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট। এতে লন্ডন প্রবাসী সিলেটের বাসিন্দারা খুশি হলেও অসন্তুষ্ট ঢাকার যাত্রীরা।

যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটবাসীদের দীর্ঘদিনের দাবি, সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট। কথা ছিল, চালু হবে এপ্রিলের শেষে। সব প্রস্তুতি থাকলেও করোনা মহামারিতে থেমে যায় প্রক্রিয়া। অবশেষে পূরণ হচ্ছে স্বপ্ন। এরই মধ্যে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে শক্তিশালী করাসহ আনুষঙ্গিক সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য সিলেটে কোয়োরেন্টাইনের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। শুধু বাকি ব্রিটিশ পরিবহন বিভাগের সার্টিফিকেট। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ৪ অক্টোবর সিলেট থেকে লন্ডন যাবে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট ।

সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান বলেন, আমরা যুক্তরাজ্যের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারা সেপ্টেম্বরের মধ্যে অডিট শেষ করে ফেলবে এবং তারা যে সার্টিফিকেশন করে সেটাও হয়ে যাবে। আশা করি, আগামী ৪ অক্টোবর থেকে বিমানের প্রথম ফ্লাইট সিলেট থেকে লন্ডন যাবে।

করোনার আগে প্রতি সপ্তাহে বিমানের ঢাকা-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট ছিল চারটি। যাত্রী কম থাকায় এখন তা নেমে এসেছে একটিতে। সিলেট-লন্ডন রুট চালু হলে এই ফ্লাইটটিই যাবে সিলেট হয়ে। এতে সিলেটবাসী খুশি হলেও বাড়তি বিড়ম্বনা মনে করছেন ঢাকাসহ অন্যান্য অঞ্চলের যাত্রীরা।

 

বাংলাদেশি এক লন্ডন যাত্রী বলেন, সরাসরি সিলেট ও লন্ডন রুটে ফ্লাইট চালু হলে আমাদের জার্নিও কম হবে। হ্যারেজমেন্টও কম হবে।

করোনা সংকট না কাটা পর্যন্ত ঢাকা ও সিলেট থেকে লন্ডনে আলাদা ফ্লাইট চালু করা সম্ভব নয় বলে জানায় বিমান সংস্থাটি।

বিমান বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচলক মোকাব্বির হোসেন বলেন, আমরা ডাটা এ্যানালাইস করে দেখেছি, বিজনেস ক্লাসের ৮০ শতাংশ যাত্রী হচ্ছেন ঢাকার। তবে, সিলেট থেকে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার জন্য ওইরকম যাত্রী এখন আমাদের নেই।

বর্তমানে একমাত্র বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা থেকে সরাসরি লন্ডন যায়। এই ফ্লাইটের দুই তৃতীয়াংশ যাত্রীই সিলেটের।